আগামীকাল ঠাকুরগাঁও আসছেন প্রধানমন্ত্রী

নি উজ ডেক্স : আগামীকাল ঠাকুরগাঁও আসছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ঠাকুরগাঁওয়ে দলীয় জনসভায় বক্তব্য রাখবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। এদিকে প্রধানমন্ত্রীর সফরকে ঘিরে চার স্তরের নিরাপত্তা বলয় গড়ে তুলেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষীবাহিনী।  ৬৬টি প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর।

খালেদাকে মুক্তির শপথ বিএনপি

মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে রাজধানীতে শোভাযাত্রা করেছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি। পূর্বঘোষণা অনুযায়ী মঙ্গলবার বেলা দুইটার দিকে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে শোভাযাত্রাটি শুরু হয়ে মালিবাগ-শান্তিনগর মোড়ে গিয়ে শেষ হয়। শোভাযাত্রায় নেতৃত্ব দেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এসময় তারা কারাগারে থাকা খালেদা জিয়াকে মুক্তির শপথ নেন।

দীর্ঘদিন পর এটি বিএনপির বড় ধরনের পথযাত্রা। এর আগে বিএনপি অবস্থান কর্মসূচি কিংবা সভা সেমিনার করলেও রাজপথে নামতে পারেনি। শোভাযাত্রা উপলক্ষে দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে নয়াপল্টনে জড়ো হন বিএনপির নেতা–কর্মীরা। এরপর বেলা দুইটার দিকে নাইটিঙ্গেল মোড় থেকে ফকিরাপুল পর্যন্ত নানা ধরনের ব্যানার ফেস্টুন নিয়ে সড়কে অবস্থান নেন দলটির নেতা–কর্মীরা।

তবে বিএনপির শোভাযাত্রা উপলক্ষে আগে থেকেই নয়াপল্টন এলাকায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। শোভাযাত্রার এক পর্যায়ে বেলা দেড়টার দিকে পিকআপ ভ্যানের তৈরি অস্থায়ী মঞ্চে বক্তব্য দেন বিএনপি নেতারা। দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান ও যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী সমাবেশে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন।

শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘যারা গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে স্বাধীনতার সার্বভৌমত্বে বিশ্বাস করে, মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় বিশ্বাস করে তাদের অবশ্যই খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার জন্য শপথ নিতে হবে। গণতন্ত্রকে মুক্ত করতে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার বিকল্প নেই।’

দেশের মানুষ শান্তি চায়, তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার ফিরে পেতে চায় বলে মন্তব্য করেন মির্জা ফখরুল। তিনি বলেন, ‘আসন্ন সংসদ নির্বাচনে নিরপেক্ষ সরকার গঠন নিশ্চিত করতে হবে। প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগ করে, সংসদ ভেঙে দিতে হবে। জনগণের জন্য একটি নির্বাচিত সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে।’

ফখরুলের নেতৃত্বে বিএনপির শ্রদ্ধা

দলীয় চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে ছাড়াই মহান স্বাধীনতা দিবসে সোমবার সকাল ৯টা ১০ মিনিটে সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছে বিএনপি। বেগম খালেদা জিয়া জেলে থাকায় মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে দলটির নেতাকর্মীরা শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এরপর মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বেই দুপুর পৌনে ১২টার দিকে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের চন্দ্রিমা উদ্যানে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাজারে ফুল দেন দলটির নেতাকর্মীরা। দলটির বিভিন্ন অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের পক্ষ থেকেও জিয়ার মাজারে শ্রদ্ধা জানানো হয়। এসময় প্রয়াত নেতার আত্মার মাগফেরাত কামনা করে উলামা দলের বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেন নেতাকর্মীরা।

জিয়ার মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর আবারও কারাবন্দি খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলগীর। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমরা নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে এবং সকল দলের অংশগ্রহণে একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন চাই। এরআগে খালেদা জিয়াসহ সকল রাজবন্দিকে মুক্তি দিতে হবে। আমরা অবশ্যই এ সংগ্রামে বিজয়ী হব।’

এসময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, নজরুল ইসলাম খান, মির্জা আব্বাস, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান, আলতাফ হোসেন চৌধুরী, মো: শাহজাহান, এজেডএম জাহিদ হোসেন।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, হাবিবুর রহমান হাবিব, জয়নাল আবদীন ফারুক, আতাউর রহমান ঢালী, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু।

অন্যান্য নেতাদের মধ্যে ছিলেন বিএনপির সহ-প্রচার সম্পাদকর শামীমুর রহমান শামীম, সহ-প্রশিক্ষণ সম্পাদক ড. মোর্শেদ হাসান খান, মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস, ওলামা দলের সভাপতি এম এ মালেক প্রমুখ।

জিয়াউর রহমানের মাজারে শ্রদ্ধা জানাতে সকাল ৯টা থেকেই চন্দ্রিমা উদ্যানে জড়ো হতে থাকেন বিএনপি নেতাকর্মীরা। ঢাকার বিভিন্ন স্থান থেকে খন্ড খন্ড মিছিল নিয়ে আসেন দলটির বিভিন্ন অঙ্গ-সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীরা।
এবার দিবসটি উপলক্ষে তিন দিনের কর্মসূচি পালন করছে দলটি।

কারো জন্য নির্বাচন থেমে থাকবে না : ওবায়দুল কাদের

নিউজ ডেক্স : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, দেশে যথাসময়ে নির্বাচনের প্রক্রিয়া অনুযায়ী জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। কারো জন্য নির্বাচন থেমে থাকবে না। বিএনপি নির্বাচন করবে, কি করবে না, সেটা তাদের ব্যাপার।
আজ শনিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার নয়াপুর এলাকায় ঢাকা বাইপাস সড়ক মেরামত কাজের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।
‘পৃথিবীর কোন গণতান্ত্রিক দেশে নির্বাচনের আগে প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগ করতে হয় এমন কোন নজির নেই’- মন্তব্য করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বিএনপি নির্বাচন করবে, কি করবে না সেটা তাদের ব্যাপার। যথাসময়ে নির্বাচনের প্রক্রিয়া অনুযায়ী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনকালে নির্বাচন কমিশনকে সরকার সকল প্রকার সহায়তা করবে। আর প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগেরও প্রশ্নই আসে না।’
ওবায়দুল কাদের বিএনপিকে বিদেশিদের কাছে নালিশ না করে দেশের মানুষের সমর্থন নেয়ার পরামর্শ দেন।
তিনি বলেন, ‘বিএনপি আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে বিদেশীদের কাছে নালিশ দিচ্ছে, কিন্তু তারা জনগণের কাছে যাচ্ছে না। তারা আন্দোলন করতে চাইলে করুক। তবে জনগণের কাছে তাদের যেতে হবে।’
এর আগে ওবায়দুল কাদের ঢাকা বাইপাস সড়কটির মেরামত কাজের ব্যাপারে সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলেন।
তিনি জানান, ৬২ কোটি টাকা ব্যয়ে আড়াইহাজার ও ঢাকা বাইপাস সড়ক সহ চারটি সড়কের সংস্কার করা হবে। আগামী বর্ষা মৌসুমের আগেই অর্থাৎ মে মাসের মধ্যে এই সংস্কার কাজ শেষ করা হবে বলেও জানান তিনি।
এ সময় সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মকর্তারা তার সাথে ছিলেন। বাসস

সুষ্ঠু ভোট হলে বিএনপি ৭৫ আর আ.লীগ ২৫ ভাগ ভোট পাবে, মওদুদ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যরিষ্টার মওদুদ আহমদ বলছেন, ‘সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে বিএনপিপন্থীদের জয়ে দেশের মানুষের জনমতের প্রতিফলন বোঝা যায়। সুপ্রিম কোর্ট বার নির্বাচনের মতো যদি আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ-সুষ্ঠু হয় তাহলে বিএনপির জয় নিশ্চিত। আর প্রাপ্ত ভোটে বিএনপি জোট আর আওয়ামী লীগের আসন তফাত হবে ৭৫ঃ২৫।’

শুক্রবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে জিয়া নাগরিক ফোরাম আয়োজিত এক প্রতিবাদ সমাবেশে বিএনপির প্রভাবশালী নেতা মওদুদ আহমদ এসব কথা বলেন। এ সময় তিনি বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি এবং নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচনের দাবি জানান।

মওদুদ আহমদ বলেন, ‘সরকারি দলের প্রভাবশালী নেতারা বহুভাবে চেষ্টা করেছেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের ফলাফল উল্টোতে। কিন্তু তারা সফল হননি কারণ গণজোয়ার এখন বিএনপির পক্ষে। বিএনপি কাঙ্ক্ষিত জয় পেয়েছে।’

মওদুদ বলেন, ‘দেশের উন্নয়ন চাইলে গণতন্ত্র চর্চা জরুরি। কিন্তু দেশে নেই গণতন্ত্র, নেই, কথা বলার অধিকার। এমন বাজে পরিস্থিতিতে উন্নয়নশীল দেশের তকমা একপ্রকার অর্থহীন। বিএনপি দেশ পরিচালনা করলে অন্তত অর্ধযুগ আগেই উন্নয়নশীল দেশের স্বীকৃত পেত বাংলাদেশ।’

দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন ইস্যুতে সরকার সমঝোতায় না আসলে রাজপথে কঠোর আন্দোলনের কোন বিকল্প নেই বলে এসময় উল্লেখ করেন মওদুদ আহমেদ। তিনি বিএনপির সকল পর্যায়ে নেতাদের আন্দোলনের জন্য প্রস্তুত থাকার আহ্বান জানান।

প্রসঙ্গত, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত প্যানেল সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ মোট ১০ পদে জয়ী হয়েছে। অন্যদিকে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্যানেল জয় পেয়েছে মাত্র ৪টি পদে।

উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে নৌকায় ভোট চাইলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

চট্টগ্রাম ব্যুরো: উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকায় ভোট দেয়ার কথা বলেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল বুধবার বিকেলে চট্টগ্রামের পটিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় তিনি এ কথা বলেন।
নৌকায় ভোট চেয়ে প্রধানমন্ত্রী জনসভায় উপস্থিত নেতাকর্মীদের কাছে ওয়াদা চান। তিনি বলেন, আপনারা উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে নৌকায় ভোট দেবেন কি-না, হাত তুলে ওয়াদা করুন। তখন নেতাকর্মীরা হাত তুলে আওয়ামী লীগের নৌকা মার্কায় ভোট দেওয়ার অঙ্গীকার করেন। আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে ভোট চেয়ে আরো বলেছেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলেই দেশে উন্নয়ন হয়। একমাত্র আমরা যদি নৌকা মার্কায় ভোট পাই তাহলেই উন্নয়নের ধারাবাহিকতা থাকবে।
মুক্তিযোদ্ধাদের কারণে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, তাদের কারণেই এই দেশ বিধায় সবার আগে তাদের অধিকার।
মুক্তিযোদ্ধাদের ত্যাগ, তিতীক্ষার জন্যই বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে, উন্নত হচ্ছে। মুক্তিযুদ্ধের আত্মত্যাগের কারণেই আজকের স্বাধীনতা, উন্নয়ন। মুক্তিযোদ্ধাদের ছেলে-মেয়ে-নাতি-নাতনি সবাই সর্বাগ্রে অধিকার ভোগ করবে। সে কারণে চাকরিতে আমরা কোটার ব্যবস্থা করেছি। এ সময় সরকারি চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের জন্য যে ৩০ শতাংশ কোটা আছে, তা বহাল থাকবে বলে জানিয়ে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
তিনি বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তান আর নাতিপুতির জন্য চাকরিতে কোটা রয়েছে। কোটায় যদি না পাওয়া যায়, তাহলে শূন্য পদে সাধারণ চাকরিপ্রার্থীদের নিয়োগ দিতে কোটার বিষয়টি শিথিল করা হয়েছে। এর বাইরে কিছু করা সম্ভব নয়। সরকারি হিসাব মতে, সরকারি চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের জন্য রয়েছে ৩০ শতাংশ কোটা। আর এর বাইরে পিছিয়ে পড়া জেলাগুলোর জন্য ১০ শতাংশ, নারীদের জন্য ১০ শতাংশ, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর জন্য পাঁচ শতাংশ এবং প্রতিবন্ধীদের জন্য এক শতাংশ কোটা রয়েছে।
সভায় প্রধানমন্ত্রী বিএনপি-জামায়াতের সমালোচনা করে বলেন, আমরা উন্নয়ন করি। আর বিএনপি-জামায়াত জোট মিলে দেশকে পিছিয়ে দেয়। বিগত নির্বাচন ঠেকানোর নামে খালেদা জিয়ার নির্দেশে পুড়িয়ে পুড়িয়ে মানুষ হত্যা করা হয়েছে। খালেদা ও তার দুই ছেলে কালো টাকা সাদা বানিয়েছে। তাদের পাচারের টাকা বিদেশে ধরা পড়েছে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আছে বলেই দেশ আজ উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হয়েছে। দেশের মাটিতে দুর্নীতিবাজ, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের কোনো স্থান নেই।
ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার অঙ্গীকার দিয়ে সরকার তা পূরণ করেছে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, সমগ্র বাংলাদেশে ইন্টারনেট সেবা চালু হয়েছে। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ হলে ডিজিটাল বাংলাদেশ আরও এগিয়ে যাবে। প্রধানমন্ত্রী তার সরকারের নানামুখী উন্নয়ন কর্মসূচি তুলে ধরে বলেন, পুরো চট্টগ্রামে বর্তমান সরকার ব্যাপকভাবে উন্নয়ন করছে। চট্টগ্রামের সব জায়গায় উন্নয়নের ছোঁয়া। শিক্ষা, বিশেষ করে মেয়েদের শিক্ষায় সরকারের বিভিন্ন কর্মসূচি তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, আমরা ১ কোটি ৩০ লাখ মায়ের হাতে উপবৃত্তির টাকা দিচ্ছি, যেন তাদের সন্তানেরা পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারে। এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রামের ৪২টি উন্নয়ন প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর ও উদ্বোধন করেন।
দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোসলেম উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমানের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মো. মোশাররফ হোসেন, ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ, সংসদ সদস্য ড. হাসান মাহমুদ, আওয়ামী লীগের উপ প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, উপ দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আলম চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক এমএ সালাম প্রমুখ।

এদিকে জনসভায় প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে চট্টগ্রাম মহানগরে জনসভা করার অনুরোধ জানিয়েছেন নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী। মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, পুরো চট্টগ্রাম জুড়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়নযজ্ঞ চলছে। আমাদের আর তেমন কোন চাওয়া নেই। শুধুমাত্র চট্টগ্রাম মহানগরে একটি জনসভা চাই।
দুপুরের সাথে জনসমুদ্রে পরিণত হয়েছে পটিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় এলাকা। মাঠ ছাপিয়ে কলেজ রোডসহ আশপাশের কয়েক বর্গ কিলোমিটার জনসমুদ্রে পরিণত হয়। মুক্তিযোদ্ধা সংসদের লাল- সবুজ ক্যাপ, সংসদ সদস্য শামসুল হক চৌধুরীর অনুসারীরা কমলা রঙের গেঞ্জি, ভূমি প্রতিমন্ত্রীর হলুদ টুপি, নগর ছাত্রলীগের লাল টুপিসহ অনেকেই একই রঙের পাঞ্জাবি, শাড়ি পরে শোভা বাড়িয়েছেন জনসভার।
চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের পটিয়া থানার মোড় এলাকায় দেখা গেছে, মিছিলে, স্লোগানে উজ্জীবিত নেতাকর্মীদের ¯্রােত জনসভাস্থলের দিকে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পটিয়ার স্থানীয় সংসদ সদস্য সামশুল হক চৌধুরীর ছবি সম্বলিত পোস্টার ও ব্যানারে ছেয়ে গেছে জনসভাস্থলের আশপাশ ও পুরো পটিয়া। দক্ষিণ চট্টগ্রামের সংসদীয় আসন আনোয়ারা, পটিয়া, চন্দনাইশ, বাঁশখালী, সাতকানিয়া-লোহাগাড়ার স্থানীয় সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী সম্ভাব্য পদপ্রত্যাশীরা বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি দিয়ে বড় ব্যানার ছাপিয়ে টাঙিয়ে দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি মহানগর ও উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবন্দরাও জনসভা মঞ্চে আসতে শুরু করেন। তবে জনসভার কারণে সৃষ্ট গণপরিবহন সংকটে ভোগান্তিতে পড়েন দক্ষিণ চট্টগ্রামের বিভিন্ন রুটের যাত্রীরা। সকাল থেকে দক্ষিণ চট্টগ্রামের বিভিন্ন রুটে গণপরিবহন কম থাকায় এ ভোগান্তির সৃষ্টি হয়।
এর আগে দুপুরে চট্টগ্রামের ডকইয়ার্ডে ন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ট প্রদানকালে প্রধানমন্ত্রী ভাষণ দেন। এ সময় আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে বাংলাদেশ নৌবাহনীর পরিচিতি অনেক বেড়েছে বলে মন্তব্য করে বলেন, নৌবাহিনীর জাহাজ বিভিন্ন দেশে আন্তর্জাতিক মহড়ায় অংশ নিচ্ছে এবং নিজেরাও সফলভাবে মহড়ার আয়োজন করছে। উপমহাদেশে কেবল বাংলাদেশ নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজই ভূ-মধ্যসাগরে মাল্টিন্যাশনাল মেরিটাইম টাস্কফোর্সের আওতায় সফলভাবে নিয়োজিত থেকে সারাবিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করছে। প্রতিবেশি দেশের সঙ্গে শান্তিপূর্ণভাবে সমদ্রসীমা নির্ধারণের ফলে প্রাকৃতিক সম্পদে ভরা বিশাল সমুদ্র এলাকা অর্জন হয়েছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই সমুদ্র সম্পদকে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন এবং ব্লু-ইকনোমির বিভিন্ন কার্যক্রম বাস্তবায়নে নৌবাহিনীকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে। তিনি বলেন, দেশের বাণিজ্যের ৯০ শতাংশের বেশি সমুদ্র পথে পরিবাহিত হয়। বিশাল এ সমদ্র এলাকার সুষ্ঠু পরিবেশ ও নিরাপত্তা নিশ্চিতে নৌবাহিনী সফলভাবে দায়িত্ব পালন করছে। সমদ্র ও উপকূলীয় এলাকায় মানব পাচার, চোরাচালান রোধ, জেলেদের নিরাপত্তা, বাণিজ্যিক জাহাজের নিরাপদ যাতায়াত নিশ্চিতে করাসহ অর্থনৈতিক উন্নয়নে নৌবাহিনীর ভূমিকা প্রশংসনীয়।
শেডে অল্পসংখ্যক সদস্য নিয়ে যাত্রা শুরু করা বিএন ডকইয়ার্ডে এখন ২৪টি ওয়ার্কশপ পরিচালিত হচ্ছে প্রায় ২ হাজার সামরিক-বেসামরিক জনবল দিয়ে। বিএন ডকইয়ার্ডের নিজস্ব ফ্লোটিং ডক ‘বিএনএফডি সুন্দরবন’ যাত্রা শুরুর পর থেকে দেশি-বিদেশি ৭০৭টি যুদ্ধজাহাজের সফল ডকিং ও রক্ষণাবেক্ষণ সম্পন্ন হয়েছে। এছাড়া বিএন স্লিপওয়ে প্রায় ৩৬২ জাহাজের রক্ষণাবেক্ষণ সম্পন্ন করেছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, থ্রিজি থেকে ফোরজি যুগে প্রবেশ করেছি আমরা। প্রতিটি ইউনিয়নে ডিজিটাল সেন্টার করেছি। ৯০ শতাংশ মানুষ বিদ্যুৎ সুবিধা পাচ্ছে। মানুষের গড় আয়ু বেড়ে হয়েছে ৭২ বছর। মেট্টোরেল, পায়রাবন্দর, কর্ণফুলী নদীর তলদেশে টানেল এবং এলএনজি টার্মিনাল নির্মাণের কাজ এগিয়ে চলছে। নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ করছি। ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠা করছি।
সকাল সাড়ে ১১টায় বাংলাদেশ নেভাল একাডেমিতে বঙ্গবন্ধু কমপ্লেক্সের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সকালে নেভাল একাডেমিতে পৌঁছলে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান নৌবাহিনী প্রধান এডমিরাল নিজামউদ্দিন আহমেদ। অনুষ্ঠানে স্থানীয় সংসদ সদস্য, সেনা ও বিমানবাহিনী প্রধান, নৌ সদরদফতরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, ২০১০ সালের ২৯ ডিসেম্বর বঙ্গবন্ধু কমপ্লেক্সের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী। আধুনিক এই কমপ্লেক্সটি ১৬টি পৃথক ভবন ও অবকাঠামোর সমন্বয়ে নির্মিত। এতে একাডেমিক ভবন, ট্রেনিং উইং, ওয়ার্ডরুম, প্যারেড গ্রাউন্ড, সুইমিং পুল, বোট পুল ও বাসস্থানসহ অন্যান্য সুবিধা রয়েছে। আন্তর্জাতিকমানের প্রশিক্ষণ নিশ্চিত করতে এতে সংযুক্ত করা হয়েছে সী-ম্যানশীপ, এন্টি সাবমেরিন, গানারী ও কমিউনিকেশন মডেল রুম, চার্ট রুম, সুপরিসর লাইব্রেরি, কম্পিউটার ও ল্যাংগুয়েজ ল্যাব এবং আধুনিক অডিটোরিয়াম। এছাড়া বিজ্ঞান ও কারিগরি প্রযুক্তিবিষয়ক প্রশিক্ষণের জন্য রয়েছে সাতটি বিভিন্ন ধরনের বিজ্ঞানাগার।

খালেদার জিয়ার জামিন আদেশ সোমবার

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত বেগম খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিত চেয়ে করা আবেদনের ওপর সোমবার আদেশ দেবেন আপিল বিভাগ। রাষ্ট্রপক্ষ ও দুর্নীতি দমন কমিশন, দুদকের করা পৃথক দুই আবেদনের ওপর শুনানি শেষে রোববার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বিভাগের বেঞ্চ আদেশের এ দিন ধার্য করেন।

সুপ্রিম কোর্টের রোববারের কার্যতালিকায় দুদক ও রাষ্ট্রপক্ষের আবেদন যথাক্রমে ৯ এবং ১০ নম্বরে ছিল। যথারীতি সকালে লিভ টু আপিলের ওপর শুনানি শুরু হয়। দুদকের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী খুরশীদ আলম খান। খালেদা জিয়ার পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এজে মোহাম্মদ আলী।

আলোচিত এ মামলায় বুধবার প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বিভাগ বেঞ্চ খালেদা জিয়ার জামিন রবিবার পর্যন্ত স্থগিত করেন। একই সঙ্গে এই সময়ের মধ্যে জামিন আদেশের বিরুদ্ধে দুদক ও রাষ্ট্রপক্ষকে লিভ টু আপিল করতে বলেন। পরদিন বৃহস্পতিবার লিভ টু আপিল দায়ের করে রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদক।

বিচারিক আদালতের দেয়া কারাদণ্ডাদেশের বিরুদ্ধে আপিল করলে গত সোমবার খালেদা জিয়ার চার মাসের অন্তর্বতীকালীন জামিন মঞ্জুর করেছিলেন হাইকোর্ট। পরদিন মঙ্গলবার ওই জামিন আদেশ স্থগিত চেয়ে এক ঘণ্টার ব্যাবধানে চেম্বার জজ আদালতে পৃথক দুটি আবেদন করে দুদক ও রাষ্ট্রপক্ষ। ওই দিনেই শুনানির পর আবেদন দুটি আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী।

হাইকোর্টের জামিন আদেশে বলা হয়েছে, খালেদা জিয়া বয়স্ক মানুষ। তার নানা শারীরিক জটিলতা রয়েছে। এসব বিবেচনায় তাকে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেওয়া হলো।

প্রসঙ্গত, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি দুপুরে খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন রাজধানীর বকশীবাজারে স্থাপিত অস্থায়ী পঞ্চম বিশেষ জজ আদালতের বিচারক ড. আখতারুজ্জামান। রায় ঘোষণার পরপরই তাকে ওই দিন বিকালে নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

এই মামলায় খালেদা জিয়ার ছেলে ও বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ অন্য পাঁচ আসামিকে ১০ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন বিচারিক আদালত। করা হয়েছে জরিমানাও। খালেদা ও তারেক ছাড়া অন্য চার আসামি হলেন- সাবেক মুখ্যসচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী, সাবেক এমপি ও ব্যবসায়ী কাজী সালিমুল হক কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ ও জিয়াউর রহমানের ভাগনে মমিনুর রহমান। এর মধ্যে তারেক রহমান ইংল্যান্ডে এবং পলাতক রয়েছেন কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও মমিনুর রহমান।

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে চট্টগ্রামের মহাসমাবেশে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর : বিএনপি গণতন্ত্র রক্ষার জন্য আন্দোলন করছে

চট্টগ্রাম ব্যুরো: বিএনপি গণতন্ত্র রক্ষার জন্য আন্দোলন করছে বলে মন্তব্য করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, বিএনপি ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য আন্দোলন করছে না। গণতন্ত্র রক্ষার জন্য আন্দোলন করছে। সরকারপ্রধান হেলিকপ্টারে চড়ে ভোট চেয়ে জনসভা করছে, আর আমাদের সভা করার অনুমতি দিচ্ছে না।
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে চট্টগ্রাম মহানগরীর কোতোয়ালি থানার নূর আহমদ সড়কে মহাসমাবেশ তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় তিনি বর্তমান সরকার মামলার ফরম্যাট করে রেখেছে দাবি করে বলেন, যখন যাকে খুশি তাকে ওই ফরম্যাটে ফেলে জেল-জুলুম করছে।
গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে তিনটায় নেপালের ত্রিভুবন বিমানবন্দরে ফ্লাইট বিএস২২১ বিধ্বস্ত হয়ে নিহতদের প্রতি শোক জানিয়ে সভার কাজ শুরু করা হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন। পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর। বক্তব্য দেন স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহাম্মদ, মির্জা আব্বাস, ড. মঈনু খান, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী প্রমূখ।
লালদীঘি পাড়ে সমাবেশটি করার ঘোষণা দিলেও পুলিশের অনুমতি না পাওয়ায় শেষপর্যন্ত দলীয় কার্যালয়ের সামনের সড়কে এ সমাবেশ করছে বিএনপি।

গাইবান্ধা উপনির্বাচনে জাপা প্রার্থী শামীম বেসরকারিভাবে নির্বাচিত

জাতীয় পার্টি (এরশাদ) মনোনীত প্রার্থী শামীম হায়দার পাটোয়ারী আজ জাতীয় সংসদের গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের উপ-নির্বাচনে সংসদ সদস্য হিসেবে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।
আজ রাত ৯টায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের (ইউএনও) কার্যালয়ের কনফারেন্স রুমে আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার জিএম সাহতাব উদ্দিন উপ-নির্বাচনের এই বেসরকারি ফলাফল ঘোষণা করেন।
সাহতাব বলেন, জাতীয় পার্টি (এরশাদ) মনোনীত প্রার্থী ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী ৭৮ হাজার ৯২৬ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটবর্তী প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আফরুজা বারী ৬৮ হাজার ৯১৩ ভোট পেয়েছেন।
নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার সময় সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা, প্রার্থী ও তাদের এজেন্ট ও সাংবাদিকসহ বিপুলসংখ্যক মানুষ উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের উপ-নির্বাচনে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয় এবং তা বিরতিহীনভাবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলে।
ইসি সচিবালয়ের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, ‘সুষ্ঠু, অবাধ ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণের লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশন (ইসি) সব ধরনের সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করে।’ তিনি বলেন, সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে নির্বাচনী এলাকায় নিñিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। ব্যাপক সংখ্যক আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়।’
কমিশন সূত্র জানায়, গাইবান্ধা-১ নির্বাচনী এলাকার প্রতিটি সাধারণ ভোটকেন্দ্রে ৮ জন পুলিশসহ ২২ জন এবং গুরুত্বপূর্ণ ভোটকেন্দ্রে ১০ জন পুলিশসহ ২৪ জন আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য মোতায়েন ছিল। মোবাইল টিমে ৩০১ জন ও স্ট্রাইকিং ফোর্সে ১৬০ জন পুলিশ, মোবাইল টিমে ১৫০ জন এবং স্ট্রাইকিং ফোর্সে ১৫০ জন এপিবিএন, প্রতি কেন্দ্রে ১৪ জন করে ১ হাজার ৫২৬ জন আনসার সদস্য, মোবাইল টিমে ১৭২ জন এবং স্ট্রাইকিং ফোর্সে ১৫০ জন ব্যাটালিয়ান আনসার এবং ৮ প্লাটুন বিজিবি ও র‌্যাবের ১৮টি মোবাইল টিম মোতায়েন রয়েছে।
সড়ক দুর্ঘটনায় আহত গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সাংসদ গোলাম মোস্তফা আহমেদ গত ১৯ ডিসেম্বর মারা যান। তার মৃত্যুতে শূন্য হওয়া এ আসনে চারজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তারা হলেন- আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী প্রয়াত সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনের বোন আফরুজা বারী, জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) প্রার্থী জিয়া জামান ও গণফ্রন্টের মো. শরিফুল ইসলাম। এ আসনের মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৩৮ হাজার ৫৫৬ জন ও মোট ভোটকেন্দ্র ১০৯টি।
গাইবান্ধা-১ নির্বাচনী আসনে রংপুরের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা জি.এম সাহতাব উদ্দিন রিটার্নিং অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। বাসস

খালেদা জিয়াকে নিয়ে নির্বাচন করার মুখ বিএনপির নেই : তথ্যমন্ত্রী

নিউজ ডেক্স : জাসদ সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত খালেদা জিয়াকে নিয়ে নির্বাচন করার মুখ বিএনপির নেই। তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তির কথা, সহায়ক সরকারের কথা, মিথ্যা মামলা ও মামলার নীল নকশার কথা বলে বিএনপি নির্বাচন বর্জন করার অজুহাত খুঁজছে। আজ দুপুরে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের মাঝে বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত … Read moreখালেদা জিয়াকে নিয়ে নির্বাচন করার মুখ বিএনপির নেই : তথ্যমন্ত্রী