সৈকতে যেন আত্মাহুতি দিল ৭৫ তিমি

আন্তর্জাতিক ডেক্স : অস্ট্রেলিয়ার একটি সমুদ্র সৈকতে আটকা পড়েছে ১৫০টি তিমি। এর মধ্যে মারা গেছে ৭৫টি তিমি। এতগুলো তিমির এভাবে সৈকতে (অল্প পানি) চলে আসাটা এক প্রকার আত্মাহুতি। কথিত আছে, নিজের প্রাণনাশের জন্যই নাকি তিমিরা সৈকতে উঠে আসে। মারা যাওয়া এসব তিমিকে ছোট প্রজাতির বলে সনাক্ত করেছেন বিশেষজ্ঞরা। শুক্রবার ভোরে অস্ট্রেলিয়ার পার্থ শহরের ৩০০ কিলোমিটার … Read moreসৈকতে যেন আত্মাহুতি দিল ৭৫ তিমি

ফ্রান্সে জিম্মি সঙ্কটের অবসান, বন্দুকধারীসহ নিহত ৫

নিউজ ডেক্স : পুলিশের গুলিতে বন্দুকধারী নিহত হওয়ার মধ্য দিয়ে ফ্রান্সের ত্রেবেসের সুপারমার্কেটে ‘জিম্মি’ সংকটের নাটকীয় অবসান ঘটেছে। এ ঘটনায় হামলাকারীসহ ৫ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন পুলিশসহ অন্তত ১২ জন।

বিবিসির খবরে বলা হয়, শুক্রবার সকালে সুপারমার্কেটটিতে ওই বন্দুকধারীর অন্তত তিনজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আরও পাঁচ জন আহত হন। এক পর্যায়ে এক জিম্মির বিনিময়ে ফরাসি পুলিশের এক সদস্যকে হামলাকারীর হাতে তুলে দেয়া হয়। এরপরই দেশটির এলিট পুলিশের ঝটিকা অভিযানে ওই হামলাকারী নিহত হন।

এদিকে জিম্মি সংকটের সময় গুরুতর আহত পুলিশ কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কর্নেল আর্নাউদ বেলট্রেম শুক্রবার মারা গেছেন বলে নিশ্চিত করেছে ফরাসি পুলিশ। এর ফলে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় ৫ জনে।

জিম্মিদশা চলাকালে একজন বন্দির বিনিময়ে নিজেকে হামলাকারীর হাতে তুলে দিয়েছিলেন আর্নাউদ বেলট্রেম। তার জন্যই দ্রুত ও কম সংখ্যক হতাহতের মধ্য দিয়ে জিম্মি সংকট অবসান হয়। অসামান্য ভূমিকার জন্য নিহত এই পুলিশ কর্মকর্তাকে ‘নায়ক’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছিলেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রন। আর দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জেরার্ড কলোম্ব টুইটারে লিখেছেন, আর্নাউদ বেলট্রেমের নায়কোচিত মনোভাব, সাহস ও আত্মদান কখনও ভুলবে না ফ্রান্স।

২৬ বছর বয়সী ওই বন্দুকধারীর নাম রেদোয়ান লাকদিম। মরোক্ক বংশোদ্ভূত এই তরুণ বন্দুকের পাশাপাশি ছুরি ও গ্রেনেড নিয়ে হামলা চালায়। লাকদিমের নাম আগে থেকেই ‘তালিকাভুক্ত’ ছিল বলে জানিয়েছে ফরাসি গোয়েন্দা সংস্থা।

রয়টার্সের খবরে বলা হয়, হামলাকারী লাকদিম ‘ছোটখাটো অপরাধ’ করায় কর্তৃপক্ষের নজরে ছিল বলে জানিয়েছেন ফরাসি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জেরার কুলুম্ব। মন্ত্রী বলেন, ‘তাকে কখনও জঙ্গি বলে সন্দেহ করা হয়নি। সে একাই এই হামলা চালিয়েছে।’

ফরাসি পুলিশ জানিয়েছে, বন্দুকধারী সুপার মার্কেটে ঢুকেই গুলি ছোড়ে। সেখানকার বিক্রয় কর্মী ও ক্রেতাদের জিম্মি করে। এরপর জিম্মিদের বিনিময়ে ২০১৫ সালের প্যারিস হামলায় সন্দেহভাজন আটক সালাহ আব্দে স্লামের মুক্তি দাবি করে।

স্থানীয় সময় শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে পার্বত্য শহর ত্রেবেসের ‘সুপার-ইউ’-এ হামলা হামলা চালায় বন্দুকধারী রেদোয়ান লাকদিম। হামলার দায় স্বীকার করেছে জঙ্গীগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট বা আইএস। এটিকে সন্ত্রাসী হামলা বলেই বর্ণনা করেছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোন।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে থেকে ফ্রান্সে বেশ কয়েকটি সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছে আইএস। এসব হামলায় অন্তত ২৪০ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। এর মধ্যে ২০১৫ সালের নভেম্বরে প্যারিস হামলায়ই নিহত হন ১৩০ জন।

পদত্যাগ করেছেন মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট থিন কিউ

আন্তর্জাতিক ডেক্স : মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট থিন কিউ বুধবার পদত্যাগ করেছেন। এ পদের দায়িত্ব নেয়ার দুই বছর পর তিনি পদত্যাগ করলেন। তার অফিস থেকে আজ এই বার্তা জানানো হয়েছে। ৭১ বছর বয়সী থিন কিউ তার প্রধানমন্ত্রীত্ব ছাড়ার কোন পেছনে কারণ দেখাননি। ৫০ বছরেরও বেশি সময় পরে মিয়ানমারের বেসামরিক প্রেসিডেন্ট হন থিন কিউ। ২০১৫ সালের নভেম্বরের নির্বাচনে এনএলডি … Read moreপদত্যাগ করেছেন মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট থিন কিউ

মিয়ানমারে মুসলিম রোহিঙ্গাদের জায়গায় তৈরি হচ্ছে বৌদ্ধ গ্রাম

রোহিঙ্গা মুসলিমদের নির্যাতন করে পালিয়ে যেতে বাধ্য করার পর তাদের জায়গায় বৌদ্ধ রাখাইনদের জন্য নতুন করে গ্রাম তৈরি করা হচ্ছে। বার্তা সংস্থা এএফপি এ খবর জানিয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, রাখাইনকে রোহিঙ্গা মুসলিম মুক্ত করতেই এ কৌশল হাতে নিয়েছে দেশটির সেনাবাহিনী।

জানা গেছে, প্রাণ ভয়ে পালিয়ে যাওয়া রোহিঙ্গাদের বসত ভিটায় অগ্নিসংযোগ ও বুলডোজার চালিয়ে গুড়িয়ে দেয়ার পর ওই স্থানে সরকারি সাহয্যে এবং কিছু বেসরকারি উদ্যোগে গরিব রাখাইনদের জন্য ঘর তৈরি করা হচ্ছে। এরই মধ্যে কো তান কাউক গ্রামে নতুন তৈরি করা ঘর বাড়িতে থাকতে শুরু করেছে বৌদ্ধ রাখাইনরা।

এ বিষয়ে রাখাইন রাজ্যের সাংসদ উ হ্লা স বলেন, ‘এই এলাকা (রাখাইন) মুসলিমদের দ্বারা প্রভাবিত ছিল। তারা যেহেতু এখন এ এলাকা ছেড়ে পালিয়ে গেছে তাই আমরা এখানে দরিদ্র রাখাইনদের থাকার ব্যবস্থা করছি।’

ডয়েচে ভেলের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গরিব বৌদ্ধ রাখাইনদের জন্য তৈরি প্রতিটি ঘর তৈরিতে মাত্র সাড়ে ৪০০ মার্কিন ডলার খরচ করা হচ্ছে। এরই মধ্যে ৬৪টি ঘর তোলা হয়েছে এবং সেসব ঘরে ২৫০ জন রাখাইন বসবাসও করতে শুরু করে দিয়েছেন।

সদ্য ঘর তুলে ওই এলাকায় বসবাস শুরুকারীদের একজন চিট সাইন ইয়েইন। তিনি বললেন, ‘আমরা এর আগে এখানে ছিলাম না। এখানে আসার কথা ভাবতেও পারি নাই। কারণ আমরা আসলে ওই কালাদের (রোহিঙ্গা) ভয় পেতাম। এখন ওরা (রোহিঙ্গা) না থাকায় আমরা আমাদের আত্মীয়দের সঙ্গে একত্রে থাকতে পারছি।’

মুসলিম রোহিঙ্গাদের উচ্ছেদ করে বৌদ্ধ রাখাইনদের জন্য ঘর নির্মাণের বিষয়ে বিশ্লেষকরা মনে করেন, মূলত মুসলিম মুক্ত রাখাইন রাজ্য গড়ে তোলার জন্যই সেনাবাহিনী এই উদ্যোগ নিয়েছে। তারা নিজেরা অর্থ খরচ করে আবাসন তৈরি করে দিচ্ছে।

সেনেগালে সামরিক হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত : নিহত ৬, আহত ১৪

সেনেগালের দক্ষিণাঞ্চলে বুধবার রাতে একটি সামরিক হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে ছয়জন নিহত ও অপর ১৪ জন আহত হয়েছেন। দেশটির সরকার এক বিবৃতিতে একথা জানিয়েছে। খবর এএফপি’র। সেনা মুখপাত্র কর্নেল আবদৌ দিয়ায়ে জানান, হেলিকপ্টারটি মিসিরাহ’র একটি উপকূলীয় ম্যানগ্রোভ বনে বিধ্বস্ত হয়। এতে চার ক্রুসহ ২০ আরোহী ছিলেন। উদ্ধারকর্মীরা জানান, ঘটনাস্থলেই ছয়জন নিহত হন। সরকারি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, … Read moreসেনেগালে সামরিক হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত : নিহত ৬, আহত ১৪

বহিষ্কৃত ২৩ কূটনীতিকের নামের তালিকা পেয়েছে রাশিয়া

বহিষ্কৃত ২৩ রুশ কূটনীতিকের নামের তালিকা লন্ডন মস্কোর কাছে হস্তান্তর করেছে। রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মুখপাত্র মারিয়া জাকারোভা রোশিয়া’২৪ চ্যানেলে ‘সিক্সটি মিনিটস’ অনুষ্ঠানে একথা জানান। খবর তাসের। তিনি বলেন, ‘আজ, রাশিয়ার কাছে যে নামের তালিকা হস্তান্তর করা হয়েছে তা আমরা হাতে পেয়েছি। তারা রুশ কূটনীতিক। এদের মধ্যে সামরিক কূটনীতিকও রয়েছেন। এই ২৩ কূটনীতিককে সাতদিনের মধ্যে যুক্তরাজ্য ছাড়তে … Read moreবহিষ্কৃত ২৩ কূটনীতিকের নামের তালিকা পেয়েছে রাশিয়া

চলে গেলেন কিংবদন্তী ব্রিটিশ বিজ্ঞানী স্টিফেন হকিং

কিংবদন্তী ব্রিটিশ পদার্থবিজ্ঞানী স্টিফেন উইলিয়াম হকিং আর নেই। কোয়ান্টাম বিজ্ঞানের তত্ত্ব কৃষ্ণগহ্বর ও আপেক্ষিকতাবাদের জন্য তিনি জগত বিখ্যাত হয়েছিলেন।
ইংল্যান্ডের কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের এই বিজ্ঞানী ৭৬ বছর বয়সে মারা যান। পরিবারের মুখপাত্রের বরাত দিয়ে বুধবার সকালে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ তথ্য জানিয়েছে। তিনি একসময় বিশ্ববিদ্যালয়টির লুকাসিয়ান অধ্যাপক ছিলেন, যে পদে একসময় ছিলেন স্যার আইজ্যাক নিউটন।
‘বিগ ব্যাঙ থিওরি’র প্রবক্তা স্টিফেন হকিং কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের লুকাসিয়ান অধ্যাপক পদ থেকে ২০০৯ সালে অবসর নেন। রয়্যাল সোসাইটি অব আর্টসের সম্মানীয় ফেলো এবং পন্টিফিকাল একাডেমি অব সায়েন্সের আজীবন সদস্য ছিলেন তিনি।
স্টিফেন হকিংয়ের তিন সন্তান লুসি, রবার্ট ও টিম ব্রিটিশ গণমাধ্যমে এক বিবৃতিতে জানায়, ‘আমাদের প্রিয় বাবা আজ মৃত্যুবরণ করায় আমরা গভীর ভাবে শোকাহত। তিনি ছিলেন একজন মহান বিজ্ঞানী এবং অসাধারণ মানুষ। তাঁর কর্ম ও অবদান বহুবছর ধরে টিকে থাকবে।’
তারা স্টিফেন হকিংয়ের ‘সাহস ও অধ্যাবসায়ের’ প্রশংসা করে বলেন, ‘হকিংয়ের প্রতিভা এবং রসবোধ বিশ্বব্যাপী মানুষকে অনুপ্রেরণা জোগাবে। তিনি চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন।’
পদার্থবিজ্ঞানের ইতিহাসে অন্যতম সেরা তাত্ত্বিক বিবেচনা করা হয় স্টিফেন হকিংকে। তাঁর জন্ম হয়েছিল ইংল্যান্ডের অক্সফোর্ডে, ৮ জানুয়ারি ১৯৪২ সালে।
বাবা ড. ফ্রাঙ্ক হকিং ছিলেন জীববিজ্ঞানের গবেষক আর মা ইসাবেলা ছিলেন রাজনৈতিক কর্মী। উত্তর লন্ডনের এই পরিবার দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় অক্সফোর্ডে আসে। ছেলেবেলা থেকেই হকিংয়ের আগ্রহ ছিল বিজ্ঞান আর গণিতে। হকিংয়ের বাবা ড. ফ্রাঙ্ক চাইতেন, ছেলেও তাঁর মতো চিকিৎসক হোক। কিন্তু হকিংসের আগ্রহ ছিল গণিতে। ১৯৫২ সালে অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি কলেজে ভর্তি হন তিনি। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছিলেন তাঁর বাবাও। কিন্তু সেখানে গণিত কোর্স না থাকায় পরে পদার্থবিজ্ঞানে পড়া শুরু করেন। পদার্থবিজ্ঞানে হকিংয়ের আগ্রহের বিষয়গুলো ছিল অপগতিবিদ্যা, আপেক্ষিকতা, কোয়ান্টামবিদ্যা।
ছাত্র হিসাবে খুব একটা মেধাবি ছিলেন না হকিং। ১৯৮৮ সালে সৃষ্টিতত্ত্ব নিয়ে ‘কালের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস’ গ্রন্থটি হকিংকে সাধারণ বিজ্ঞানমনস্ক মানুষের কাছে ব্যাপকভাবে পরিচিত কওে তোলে। এ বইটি সারা বিশ্বে কয়েক কোটি কপি বিক্রি হয়। তিনি প্রিন্স অব অস্ট্রিয়ান্স পুরস্কার, জুলিয়াস এডগার লিলিয়েনফেল্ড পুরস্কার, উলফ পুরস্কার, কোপলি পদক, এডিংটন পদক, হিউ পদক, আলবার্ট আইনস্টাইন পদক অর্জন করেছিলেন।
১৯৬৪ সালে মাত্র ২২ বছর বয়সে স্টিফেন হকিং মোটর নিউরন রোগে আক্রান্ত হন। তাঁর চিকিৎসক বলেছিলেন, আর মাত্র কয়েক বছর বাঁচবেন তিনি। কিন্তু সমস্ত প্রতিকূলতাকে জয় করে ৭৬ পূর্ণ করেছিলেন এই বিজ্ঞানী।
তবে বেঁচে থাকলেও এই রোগ তাঁর স্বাভাবিক চলাফেরার ক্ষমতা কেড়ে নেয়। আক্রান্ত হওয়ার পর থেকেই তিনি কথা বলতে ও নড়াচড়া করতে পারতেন না। তবুও থেমে থাকেনি তাঁর কাজ। তিনি কথা বলতে শুরু করেন ভয়েস সিন্থেসাইজারের মাধ্যমে। এই যন্ত্র হকিংয়ের মুখের পেশির নড়াচড়া অনুযায়ী কথা বলত। এ ছাড়া গলার কম্পাঙ্ক এবং চোখের পাতার নড়াচড়া অনুযায়ী লিখতে পারতেন। আর এইভাবেই বাকি জীবন কাজ করে গেছেন হকিং।
২০১৩ সালে করা এক প্রামাণ্যচিত্রে স্টিফেন হকিং বলেছিলেন, ‘প্রতিদিনই আমার জীবনের শেষ দিন হতে পারত। তাই আমি প্রতিটি মুহূর্তকে কাজে লাগাতে চাই।’
১৯৭৪ সালে বিকিরণতত্ত্ব দেন হকিংস, যা ‘হকিংস রেডিয়েশন’ নামে পরিচিত।
হকিংয়ের সবচেয়ে বড় কৃতিত্ব আইনস্টাইনের সাধারণ আপেক্ষিকতা এবং বোর-হাইজেনবার্গেও কোয়ান্টাম তত্ত্বকে মিলিয়ে দেওয়া। আপেক্ষিকতার তত্ত্ব কাজ করে মহাজগতের অতিকায় বস্তু নিয়ে আর কোয়ান্টাম তত্ত্বের বাহাদুরি হচ্ছে ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র জগতে।
এছাড়া মহাজাগতিক পদার্থবিজ্ঞানে তিনি বেশ কয়েকটি গুরুত্ব¡পূর্ণ তত্ত্বের অবতারণা করেন। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য প্যানরোজ – হকিং তত্ত্ব, বেকেনস্টাইন – হকিং ফরমুলা, হকিং এনার্জি, গিবসন – হকিং স্পেস ও গিবসন – হকিং এফেক্ট।
বিজ্ঞানী গ্যালেলিওর মৃত্যুর ঠিক ৩শ’ বছর পর ৮ জানুয়ারি ১৯৪২ সালে জন্ম হয়েছিল স্টিফেন হকিংয়ের। আর তার মৃত্যু ঘোষিত হল বিজ্ঞানী আলবার্ট আইনস্টাইনের ১৩৯ তম জন্মবার্ষিকীর দিনে।
মানুষের মৃত্যু-পরবর্তী জীবন নিয়ে নানা কথা চালু থাকলেও হকিং মনে করতেন, এ শুধুই রূপকথা। সেই রূপকথার জগতেই ঠাঁই নিলেন এই বিজ্ঞানী। বাসস

বিমান দুর্ঘটনায় প্রাণহানিতে রুশ প্রেসিডেন্টের শোক

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুটিন নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুতে ইউএস-বাংলার একটি বিমান দুর্ঘটনায় প্রাণহানিতে শোক প্রকাশ করেছেন।
রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে পাঠানো শোক বার্তায় পুটিন বলেন, কাঠমান্ডু বিমানবন্দরে বাংলাদেশী বিমান দুঘর্টনায় বিপুলসংখ্যক লোকের প্রাণহানিতে আমি গভীরভাবে শোকাহত।
শোক বার্তায় নিহতদের পরিবারের প্রতি তার আন্তরিক সমবেদনা ও সহানুভূতি জানানো হয় এবং আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করা করা হয়।
এই বিমান দুঘর্টনায় কমপক্ষে ৪৯ জন যাত্রী নিহত হয়। এরমধ্যে ২৬ জন বাংলাদেশী রয়েছে। গতকাল বিমানটি নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুর উদ্দেশ্যে দুপুরে ঢাকা ছেড়ে গিয়ে সেদেশের ত্রিভূবন আর্ন্তজাতিক বিমান বন্দরে অবতরণের সময়ে বিধ্বস্ত হয়। বাসস

চিঠির খাম খুলতেই অসুস্থ ১১ জন

চিঠির খাম খুলতেই অসুস্থ হয়ে পড়েছেন ১১ জন মার্কিন নৌসেনা। ভার্জিনিয়ার জয়েন্ট বেস ফোর্ট মায়ার-হেন্ডারসন হলে এক সেনা অফিসার একটি চিঠির খাম পান খোলার পর তাঁদের হাত চুলকাতে শুরু করে। কয়েক মিনিটের মধ্যে নাক ও মুখমণ্ডল দিয়ে রক্ত বের হতে থাকে।

কমপক্ষে ১১ জন নৌসেনা এই ঘটনায় অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাঁদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

স্থানীয় দমকল বাহিনী ও সামরিক ঘাঁটির মুখপাত্রের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্সসহ একাধিক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ডাক মারফত আসা একটি চিঠি খোলার পর ১১ জন অসুস্থবোধ করেছেন। তাদের মধ্য থেকে তিনজনকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আর্লিংটনের মায়ার-হেন্ডারসন যৌথ ঘাঁটির মুখপাত্র লিয়েহ রুবালকাবা বলেছেন, ‘কেউ একজন চিঠিটি খোলেন। তারপর থেকেই রহস্যজনকভাবে দপ্তরের সবাই অসুস্থ বোধ করতে শুরু করেন।’

আর্লিংটনের সামরিকঘাটির মেরিন কোর দপ্তরে পাঠানো ওই চিঠির বিষয়ে দপ্তরটি এক বিবৃতিতে বলেছে, খামের মধ্যে একটি অজ্ঞাত বস্তু পাওয়া যায়। এরপর সেখানে অনেকে অসুস্থবোধ করেন। এ ঘটনার পর চিঠিটি সরিয়ে ফেলা হয়েছে এবং ভবনটি পরিষ্কার করা হয়েছে।

 

‘অস্ত্র তৈরিতে কারও অনুমতির ধার ধারে না’ ইরান

অস্ত্র তৈরির জন্য ইরান কারও অনুমতির জন্য অপেক্ষা করবে না বলে স্পষ্ট ভাষায় জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি। বুধবার ইরানের দক্ষিণে অবস্থিত বন্দর আব্বাস-এ এক জনসমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

জনসমাবেশে রুহানি বলেন, ক্ষেপণাস্ত্রসহ প্রতিরক্ষা ও সামরিক সরঞ্জাম তৈরির অধিকার ইরানের রয়েছে। এজন্য আমরা কারো অনুমতি নেব না। এমনকি এ বিষয়ে কারো সঙ্গে কোনো আলোচনা করতেও আমরা বাধ্য নই।

এ সময় মধ্যপ্রাচ্যের নিরাপত্তা ইস্যু প্রসঙ্গে ইরানের প্রেসিডেন্ট বলেন, আমাদের অঞ্চলের নিরাপত্তা আমরাই নিশ্চিত করতে পারবো। এজন্য বাইরের কোনো দেশ ও শক্তির প্রয়োজন নেই। বরঞ্চ আমরা প্রতিবেশী দেশগুলোকে এ ব্যাপারে সহযোগিতা করতে প্রস্তুত আছি।

তিনি বলেন, আমেরিকার কারণে পরমাণু সমঝোতা আজ হুমকির মুখে। তবে ইউরোপসহ বিশ্বের অধিকাংশ দেশ আমেরিকার এই তৎপরতার নিন্দা জানিয়েছে। ইরানের ক্ষতি করতে গিয়ে আমেরিকা নিজেই কোণঠাসা হয়ে পড়েছে। এ সময় তিনি জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে রাশিয়ার অবস্থানের প্রশংসা করেন।

ইয়েমেন প্রসঙ্গে রুহানি বলেন, ইয়েমেনের জনগণের কল্যাণ করতে চাইলে সৌদি আরবকে ধ্বংসাত্মক বোমা দেওয়া বন্ধ করতে হবে। একইসাথে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষগুলোকে সাহায্য করার ব্যাপারে সৌদি আরবের ওপর চাপ সৃষ্টি করতে হবে।