খাস খতিয়ান ভুক্ত মুক্তিযোদ্ধাদের বন্দোবস্ত প্রদানকৃত জমি বুঝিয়ে দিলেন

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা ঃ পলাশবাড়ীতে খাস খতিয়ান ভুক্ত মুক্তিযোদ্ধাদের বন্দোবস্ত প্রদানকৃত ৪.৮০ একর জমি বুঝিয়ে দিলো ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফ হোসেনঅবৈধ দখলদার মুক্ত করে গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী উপজেলার হরিনাথপুর ইউনিয়নের মরাদাতেয়া মৌজার ১ নং খাস খতিয়ান ভুক্ত ৪.৮০ একর জমি ১২ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা কে দখলস্বত্ত বুঝিয়ে দেন পলাশবাড়ী উপজেলার ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) মোঃ আরিফ হোসেন।দীর্ঘ সময়ের এ জটিলতা নিরসনে মহান বিজয় দিবস-গত বছর ২০১৭ উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত বীর মুক্তিযোদ্ধাগণের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে পলাশবাড়ী উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধাগণের সম্মিলিত দাবি ছিল ১৯৯৯ সালে সরকার কর্তৃক ১২ জন বীর মুক্তিযোদ্ধাগণকে বন্দোবস্ত প্রদানকৃত৪. ৮০ একর জমির দখল অনতিবিলম্বে বুঝিয়ে দিতে হবে। সেদিন অনুষ্ঠানস্থলে পলাশবাড়ী উপজেলা প্রশাসন অঙ্গিকার করেছিল যত শীঘ্র সম্ভব বন্দোবস্তকৃত জমি বীর মুক্তিযোদ্ধাদের দ্রুত দখল বুঝিয়ে দেওয়া হবে।সে অঙ্গিকার অনুযায়ী আজ ২৪ মার্চ -২০১৮ শনিবার উপরোক্ত জমিগুলো দখল মুক্ত করে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ,বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ ও সাধারণ গ্রামবাসীর উপস্থিতিতে শান্তিপূর্ণভাবে ৬ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা ও ৬ জন পরলোকগত বীর মুক্তিযোদ্ধাগণের উত্তরাধিকারীর মধ্যে ৯ নং হরিনাথপুর ইউনিয়নের মরাদাতেয়া মৌজার ১ নং খাস খতিয়ানভুক্ত ৪. ৮০ একর কৃষিজমির দখল স্বত্ত বুঝিয়ে দেওয়া হয়। সেই সঙ্গে সীমান নির্ধারণ করে লাল নিশান লাগিয়ে দেওয়া হয়।এসময় উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডের সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহমান সহ বীরমুক্তিযোদ্ধাগণ, হরিনাবাড়ী তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। ছবি

Leave a Comment