ইংল্যান্ডকে ৫৮ রানে গুটিয়ে দিয়েছে কিউইরা

নিউজিল্যান্ড-ইংল্যান্ডের ওয়ানডে সিরিজ জমজমাট একটা টেস্টের আভাস দিয়েছিল। কিন্তু ক্রিকেটপ্রেমীদের রোমাঞ্চে জল ঢেলে দিল নিউজিল্যান্ড। অকল্যান্ডে দিবা-রাত্রির টেস্টের প্রথম ইনিংসে ইংল্যান্ডকে ৫৮ রানে গুটিয়ে দিয়েছে কিউইরা।

সংক্ষেপে বললে ট্রেন্ট বোল্ট ও টিম সাউদি ধসিয়ে দিয়েছেন ইংলিশদের। আজ দুজন মিলেই তুলে নেন সফরকারীদের দশ উইকেট। বোল্ট অবশ্য সাউদির চেয়ে দুটি শিকার বেশি করেছেন।

ইংল্যান্ড আরো বড় লজ্জার মুখে পড়তো। যদি না বোলার ক্রেইগ ওভারটন দশম উইকেট জুটিতে জেমস অ্যান্ডারসনকে নিয়ে শেষ প্রতিরোধ না গড়তেন। শেষ জুটিতেই সর্বোচ্চ ৩১ রান করেছে ইংল্যান্ড। নিজেদের ক্রিকেট ইতিহাসে এই প্রথম, ইনিংসে দশম উইকেট জুটি থেকে সর্বোচ্চ সংগ্রহ পেল ইংল্যান্ড।

ঠিক যেন ৬৩ বছর আগের প্রতিশোধ নিল নিউজিল্যান্ড। ১৯৫৫ সালে এই মার্চেই কিউইদের মাত্র ২৬ রানে গুটিয়ে দিয়েছিল ইংল্যান্ড। যা টেস্ট ইতিহাসে কোনো দলের সর্বনিম্ন ইনিংস। কাকতালীয়ভাবে সেদিনের ভুতুড়ে মঞ্চটাও ছিল এই অকল্যান্ড!

লজ্জার অপবাদ থেকে মুক্ত হতে চেষ্টার কোনো ত্রুটি রাখেনি নিউজিল্যান্ড। আজ ২৩ রানের মধ্যে ইংল্যান্ডের আট উইকেট তুলে নিয়েছিল স্বাগতিক শিবির। একটা শঙ্কাই চেপে বসেছিল ইংলিশদের কাঁধে। কিন্তু এ যাত্রায় রক্ষা হয়েছে তাদের। টেস্ট ইতিহাসের সর্বনিম্ন সংগ্রহের লজ্জার হাত থেকে ইংলিশরা বেঁচে গেছে অল্পের জন্য। ২৭ রানে পতন হয় তাদের নবম উইকেটের।

আসলে ইংল্যান্ডকে এদিন বড্ড বাঁচা বাচিয়ে দিয়েছেন ক্যারিয়ারের তৃতীয় টেস্ট খেলতে নামা ক্রেইগ ওভারটন। অবস্থা বেগতিক শেষ দিকে ওয়ানডে মেজাজে খেলতে থাকেন তিনি। ২৫ বলে ৩৩ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে শেষ অবধি অপরাজিত থাকেন ওভারটন। ইনিংসে পাঁচটি চার ও একটি ছক্কা হাঁকান তিনি।

ইংল্যান্ড ইনিংসে ওভারটন ছাড়া মাত্র একজনই দুই অঙ্কে পৌঁছাতে পেরেছেন। তিনি ওপেনার মার্ক স্টোনম্যান। তার ব্যাট থেকে এসেছে ১১ রান। বাকিদের রানসংখ্যা যেন মোবাইল ফোনের ডিজিট। সবচেয়ে ভয়ঙ্কর তথ্যটা হচ্ছে- ইংলিশদের পাঁচজন ব্যাটসম্যান কোনো রানই করতে পারেননি।

বোল্ট-সাউদির অতিমানবীয় স্পেলে শেষ অবধি ইংল্যান্ডের প্রথম ইনিংস থেমেছে ২০.৪ ওভারে, ৫৮ রানে। যা নিজেদের টেস্ট ইতিহাসে ইংলিশদের ষষ্ঠ সর্বনিম্ন সংগ্রহ। তবে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এটাই তাদের সবচেয়ে কম রানে গুটিয়ে যাওয়ার রেকর্ড। এর আগে ১৯৭৮ সালে ওয়েলিংটনে ইংল্যান্ডকে ৬৪ রানে অল আউট করেছিল কিউইরা।

ইংলিশদের দ্রুত গুটিয়ে দিয়ে ব্যাট করতে নেমেছে নিউজিল্যান্ড। ব্যাট হাতে সাবধানী শুরুর চেষ্টায় আছে ব্ল্যাকক্যাপসরা। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত প্রথম ৩২.৪ ওভারে এক উইকেট হারিয়ে ৬৭ রান করেছে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড।

Leave a Comment